Monday, November 23, 2020
করোনা ভাইরাস করোনাভাইরাসে ২ জনের মৃত্যু,নতুন আক্রান্ত ৯ জন

করোনাভাইরাসে ২ জনের মৃত্যু,নতুন আক্রান্ত ৯ জন

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরো দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে বাংলাদেশে প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৮ জনে।

করোনাভাইরাসে নতুন শনাক্ত হয়েছেন ৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৫৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে পরীক্ষা করা হয়েছে ৪৩৪টি।

এর মধ্যে আটজনের নমুনা আইইডিসিআর-এ পরীক্ষা করে শনাক্ত হয়েছে। একজনের নমুনা ঢাকার বাইরে পরীক্ষায় শনাক্ত হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়ম অনুযায়ী ঢাকার বাইরে যিনি শনাক্ত হয়েছেন তার নমুনা আইইডিসিআর-এ আবার পরীক্ষা করা হবে।

শনিবার (৪ এপ্রিল) নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

গত ৮মার্চ দেশে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত হওয়ার বিষয়টি ঘোষণা দেওয়া হয়। ১৮মার্চ দেশে করোনাভাইরাসে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

দেশে করোনাভাইরাস শনাক্ত শুরু হওয়ার পর এক দিনে শনাক্ত হওয়া ব্যক্তির সংখ্যা আজই সর্বোচ্চ।

নতুন যে নয়জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে, তাঁদের মধ্যে পাঁচজন এর আগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছেন।

অর্থাৎ, করোনায় আক্রান্ত পরিবারের সদস্য তাঁরা। বাকি দুজন বিদেশ থেকে এসেছিলেন। অন্য দুজনের শনাক্ত হওয়ার বিষয়ে অনুসন্ধান চলছে।

নতুন করে আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে দুজন শিশু রয়েছে যাদের বয়স ১০ বছরের নিচে। তিনজনের বয়স ২০ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে।

দুজনের বয়স ৫০ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে। একজনের বয়স ৬০ থেকে ৭০ বছর এবং একজনের বয়স ৯০ বছর।

মীরজাদী বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় যে দুজনের মৃত্যু হয়েছে, তাঁদের একজনের বয়স ৯০ বছর, অন্যজনের ৬৮ বছর।

একজন ঢাকার অপরজন ঢাকার বাইরে। একজনের হৃদরোগ ছিল অন্যজনের পূর্বে স্টোকের ঘটনা ছিল।

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘন্টায় দেশে নতুন করে সুস্থ হয়েছেন আরও চারজন। তাদের নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ৩০ জন।

এখন আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ১২ জন বাড়িতে থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। ২০ জন হাসপাতালে আছেন।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাংলাদেশের ১০ টি জেলায় ছড়িয়েছে পড়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঢাকায়।

তারপর মাদারীপুর, নারায়ণগঞ্জ, গাইবান্ধা জেলার অবস্থান। এছাড়া কক্সবাজার, চুয়াডাঙ্গা, রংপুর, কুমিল্লা, গাজীপুর, চট্রগ্রাম জেলায়ও রোগী আছেন।

অনলাইন ব্রিফিংয়ে উপস্থিত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক আবুল কালাম আজাদ বলেন, এ পর্যন্ত ৪ লাখ ২৮ হাজার পিপিই সংগ্রহ করা হয়েছে।

এর মধ্যে ৩ লাখ ৬৬ হাজাররে বেশি বিতরণ করা হয়েছে। এখন ৬৪ হাজারের বেশি মজুত আছে।

সূত্রঃ www.corona.gov.bd

গতকাল পর্যন্ত আক্রান্ত ছিল ৬১ জন। বিস্তারিত…

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

সাম্প্রতিক আপডেট

স্বাস্থ্যকর্মীদের পর্যাপ্ত সরঞ্জাম নেই,চিকিৎসায় বেহাল দশা

চীনে গত ডিসেম্বরেই করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। মার্চের ৮ তারিখ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এরপরই স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষা ব্যবস্থার বিষয়টি আলোচনায় আসে।...

যুক্তরাষ্ট্র WHO তে অর্থায়ন বন্ধ করবে-ঘোষণা দিলেন ট্রাম্প

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন যে তিনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে WHO (ডাব্লুএইচও) অর্থায়ন বন্ধ করতে যাচ্ছেন। কারণ করোনভাইরাস প্রাদুর্ভাবের প্রতিক্রিয়ায় এটি "এর...

নতুন আক্রান্ত ২১৯ জন, মৃত্যুবরণ করেছে ৪ জন

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন আক্রান্ত হয়েছেন ২১৯ জন। এছাড়া আরো ৪ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। নতুন আক্রান্ত ২১৯...

আক্রান্তের সংখ্যা এক হাজার অতিক্রম।নতুন আক্রান্ত ২০৯

করোনায় বাংলাদেশে মাত্র ৩৮ দিনেই আক্রান্তের সংখ্যা এক হাজার অতিক্রম করলো। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত হয়েছে ২০৯ জন।

মতামত