Sunday, July 5, 2020
করোনা ভাইরাস সারাদেশে গণপরিবহন লকডাউন ঘোষণা

সারাদেশে গণপরিবহন লকডাউন ঘোষণা

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে বাংলাদেশের সব ধরণের গণপরিবহন বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) থেকে ‘লকডাউন’ ঘোষণা করা হয়েছে। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানিয়েছে। এই লকডাউন কার্যকর থাকবে পরবর্তী দশদিন। বাংলাদেশের কোন সড়কে কোন রকম যাত্রীবাহী যানবাহন চলাচল করবে না।তবে আজ ও কাল সীমিত আকারে চলবে যাত্রীবাহী বাস।

ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান, ওষুধ ও জুরুরি সেবা এই নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকে।

২৬ মার্চ থেকে সব ধরনের ট্রেন চলাচল বন্ধের ব্যাপারে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ প্রস্তুতি নিয়েছে। ইতিমধ্যে ট্রেনের সব ধরনের টিকিট বিক্রি রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ বন্ধ করে দিয়েছে। রেলের পরিচালক (পরিচালন) মো. শফিকুল ইসলাম এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তবে মালবাহী ট্রেন চলাচল চালু থাকবে বলেও জানান।

রেলওয়ে সূত্র জানায়, গতকাল বিকেলে সরকারি ছুটি ঘোষণার পর কমলাপুর রেলস্টেশনে প্রচণ্ড ভিড় দেখা যায়। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নজরে এলে তাৎক্ষণিক রেল চলাচল বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়। বলা হয়, যে কাজের জন্য ছুটি, সেটা ব্যাহত হচ্ছে। এরপরই রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ কোনো রকম লিখিত নির্দেশ ছাড়া, দেশের মূল স্টেশনগুলোর নিয়ন্ত্রণকক্ষে ফোন করে রেল চলাচল বন্ধের নির্দেশ দেয়।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) সারাদেশে নৌপথে লঞ্চ, ছোট নৌকাসহ সব ধরনের যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে। মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বিকেল থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।তবে চলবে পণ্যবাহী নৌযান।

কাল বুধবার (২৫ মার্চ) সকাল থেকে ঢাকাসহ দূরপাল্লার সব পথে অনির্দিষ্টকালের জন্য বাস চলাচল বন্ধের সিদ্ধান্ত জানিয়েছে খুলনা মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন ও বাস মালিক শ্রমিক সমিতি। তবে খুলনার অভ্যন্তরীণ সব রুটে বাস চলাচল করবে। খুলনা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি নুরুল ইসলাম বলেন, করোনার প্রভাবে এমনিতেই সড়কে মানুষের উপস্থিতি অনেক কমে গেছে। বিশেষ করে দূরপাল্লার যাত্রীর সংখ্যা অনেক কম। এমন পরিস্থিতিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে খুলনা থেকে ঢাকা, বরিশাল, রাজশাহী, রংপুর, সিলেট, চট্টগ্রামসহ দূরপাল্লার সব রুটে বাস চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আগামীকাল বুধবার সকাল ছয়টা থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ওই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে।

এদিকে আজ মঙ্গলবার থেকে প্রতিদিন মাত্র সাত ঘণ্টা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে খুলনা শিল্প ও বণিক সমিতি। শিল্প ও বণিক সমিতির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলো খোলা থাকবে। তবে ওষুধ, কাঁচাবাজার ও মুদিদোকান এর আওতায় পড়বে না। এর ফলে সারা দেশে ২৫ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল দোকান মালিক সমিতি, তা খুলনায় কার্যকর হবে না।

গতকাল সোমবার এক সভায় ওই সিদ্ধান্ত নিয়েছে খুলনা শিল্প ও বণিক সমিতি। সমিতির সভাপতি কাজী আমিনুল হক বলেন, সাধারণত সকাল ও সন্ধ্যার পর জনসমাগম বেশি হয়। সেটি বিবেচনা করে সকাল ও সন্ধ্যায় ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হবে। তবে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দোকান ওই সীমার আওতায় থাকবে না।

করোনাভাইরাসের কারণে একে একে সব বন্ধ হচ্ছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের পর ২৬ মার্চ থেকে আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সরকারি-বেসরকারি অফিস টানা ১০ দিনের ছুটিতে পড়ছে। এ ছাড়া পরিস্থিতি মোকাবিলায় বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা দিতে আজ থেকে দেশের বিভাগীয় ও জেলা শহরগুলোতে সশস্ত্র বাহিনী নামছে। একই সঙ্গে গণপরিবহন চলাচলও সীমিত থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

সাম্প্রতিক আপডেট

স্বাস্থ্যকর্মীদের পর্যাপ্ত সরঞ্জাম নেই,চিকিৎসায় বেহাল দশা

চীনে গত ডিসেম্বরেই করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। মার্চের ৮ তারিখ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এরপরই স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষা ব্যবস্থার বিষয়টি আলোচনায় আসে।...

যুক্তরাষ্ট্র WHO তে অর্থায়ন বন্ধ করবে-ঘোষণা দিলেন ট্রাম্প

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন যে তিনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে WHO (ডাব্লুএইচও) অর্থায়ন বন্ধ করতে যাচ্ছেন। কারণ করোনভাইরাস প্রাদুর্ভাবের প্রতিক্রিয়ায় এটি "এর...

নতুন আক্রান্ত ২১৯ জন, মৃত্যুবরণ করেছে ৪ জন

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন আক্রান্ত হয়েছেন ২১৯ জন। এছাড়া আরো ৪ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। নতুন আক্রান্ত ২১৯...

আক্রান্তের সংখ্যা এক হাজার অতিক্রম।নতুন আক্রান্ত ২০৯

করোনায় বাংলাদেশে মাত্র ৩৮ দিনেই আক্রান্তের সংখ্যা এক হাজার অতিক্রম করলো। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত হয়েছে ২০৯ জন।

মতামত